ক্যারিয়ার হিসাবে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্ট

চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টরা মূলত অর্থ ব্যবস্থাপনা ও আর্থিক পরামর্শ প্রদান করে থাকে। তারা আইন অনুযায়ী প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয় আর্থিক লেনদেনের রেকর্ড রাখে এবং কোম্পানির অডিট পরিচালনা করে।

চার্টার্ড একাউন্ট্যান্ট জব প্রফাইলঃ

প্রত্যেক চাটার্ড একাউন্ট্যান্ট ইনস্টিটিউট চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশের সদস্য হিসাবে ব্যক্তিগত অনুশীলন বা ফার্ম ও প্রতিষ্ঠানের হিসাব বিভাগে কাজ করে। ব্যক্তিগত অনুশীলনের কাজের সময়কাল, আকার এবং স্থান অনুযায়ী পরিবর্তিত হয় । একটি বড় প্রাকটিসিং ফার্মের প্রতিটি একাউন্ট্যান্টের বিশেষ অভিজ্ঞতা থাকা আবশ্যক।

একাউন্টিং ও অডিটিং এর ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়। একজন একাউন্ট্যান্ট আর্থিক রেকর্ডের জন্য আদর্শ ফরমেটে লেনদেন সংক্ষেপিত করে, সম্ভাব্য আর্থিক অনুপাত গণনা করে কিংবা পরবর্তী আর্থিক বিশ্লেষণের জন্য বিশেষ ফরমেটে তথ্য সংগঠিত করে থাকে।

একাউন্টেন্টরা নিম্নলিখিত কাজগুলোর যে কোনটিতে জড়িত হতে পারেঃ

১। ফাইন্যান্সিয়াল একাউন্টিং
২। অডিটিং
৩। কস্ট একাউন্টিং
৪। কর ব্যবস্থাপনা
৫। ম্যানেজমেন্ট একাউন্টিং
৬। কনসালটেন্সি

১। ফাইন্যান্সিয়াল একাউন্টিংঃ

ফাইন্যান্সিয়াল একাউন্টিং আর্থিক রেকর্ড সংরক্ষনের সঙ্গে সম্পর্কিত। ফাইন্যান্সিয়াল একাউন্টিং হিসাবের ব্যাখ্যা, তত্ত্বাবধায়ন, নিয়ন্ত্রণ এবং আয় ও ব্যয় সংগঠিত করে এছাড়াও দৈনিক, মাসিক ও বাৎসরিক হিসাব ব্যবস্থাপনা তৈরি করে।

করণীয় কাজ সমূহঃ
• হিসাব পরিচালনা করা
• অভ্যন্তরীণ হিসাব নিরীক্ষণ করা
• পারিশ্রমিক এবং বেতন বন্টন করা
• চালান পাঠানো এবং বাকি পরিশোধ করা
• কর ব্যবস্থাপনা

২। অডিটিংঃ

ব্যক্তিগত এবং পাবলিক উভয় ক্ষেত্রে কোম্পানি আইন অনুযায়ী বিধিবদ্ধ অডিটের প্রয়োজন হয়।

• চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টরা ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি এবং অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণকে কোম্পানির পরিকল্পনা অনুযায়ী রাখতে অভ্যন্তরীণ অডিট পরিচালনা করে এবং নিশ্চিত করে যে সন্নিবেশিত রেকর্ডগুলো সঠিক এবং নিয়ন্ত্রন যথাযথ। এক্ষেত্রে কর্পোরেট নীতি ও পদ্ধতি মেনে অডিট পর্যালোচনা করা হয়।
• ট্যাক্স অডিটর যথাযথ ট্যাক্স দায় নির্ধারণের জন্য আর্থিক রেকর্ড এবং করদাতাদের প্রদত্ত তথ্য বিশ্লেষন ও পর্যালোচনা করে । সরকারী দপ্তরসমূহে ট্যাক্স অডিটর নিযুক্ত করা হয় প্রধানত করদাতাদের একাউন্ট অডিট পরিচালনার জন্য।

৩। কস্ট একাউন্টিংঃ

ব্যবসার পরিচালনা, পণ্য উৎপাদনের প্রকৃত খরচ ইত্যাদির সাথে কস্ট একাউন্টিং সম্পর্কিত ।

কস্ট একাউন্টিং এর পরিধিঃ
• বাজেট ও বাজেট নিয়ন্ত্রণ
• পূর্বাভাস
• ব্যয় মনিটর

৪। কর ব্যবস্থাপনাঃ

কর ব্যবস্থাপক হিসাবে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টরা বিশেষজ্ঞ, তারা আর্থিক কাঠামোকে নিখুঁত হতে সহায়তা করে। কোম্পানির নতুন পরিকল্পনায় করের প্রভাব, কোম্পানি কাঠামো পরিবর্তন, এমন কি যেকোন বড় সিদ্ধান্ত দেখাশোনা করে সম্পাদিত কাজের উপর কর প্রভাব করে।

৫। ম্যানেজমেন্ট একাউন্টিংঃ

সিনিয়র চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের একটি কাজ হচ্ছে ম্যানেজমেন্ট একাউন্টিং।

• প্রতিষ্ঠানের সকল অংশ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে বিশ্লেষণ করে।
• অতীত এবং বর্তমান আর্থিক লেনদেন তথা রেকর্ডের সমালোচনামূলক বিশ্লেষণ করেন ।
• ভবিষ্যতের জন্য বিশ্লেষণ করা।

৬। কনসালটেন্সিঃ

উজ্জ্বল ও উচ্চাভিলাষী তরুণ চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের জন্য কনসালটেন্সি হচ্ছে একটি চ্যালেঞ্জিং ক্ষেত্র। ব্যবসা-বানিজ্যে সাফল্যের জন্য একাউন্টিং সংক্রান্ত সঠিক তথ্যের প্রয়োজন আর এক্ষেত্রে কনসালটেন্সির কোন বিকল্প নেই।

কনসালটেন্সি কাজের পরিধিঃ
• কোম্পানির গঠন এবং কাঠামো, ধার পরিশোধ এবং আর্থিক দিক সংক্রান্ত কর্পোরেট আইন অনুযায়ী পরামর্শ।
• প্রকল্প পরিকল্পনা ও আর্থিক সম্পদ বিষয়ে পরামর্শ প্রদান।
• মার্কেট থেকে শেয়ার উত্তলনের জন্য শেয়ার মূল্যনির্ধারণ, ক্যাপিটাল শেয়ার ইস্যু, অন্য সংস্থার সথে একীভূত হওয়া।
• সম্প্রসারণ, মুনাফা বিশ্লেষণ, মুনাফা বৃদ্ধি, জয়েন্ট ভেঞ্চার প্রোগ্রাম সংক্রান্ত বিজনেস পরামর্শ প্রদান করা ।
• সাচিবিক পদ্ধতিগুলির অনুশীলন করা।
• তথ্য ব্যবস্থা ব্যবস্থাপনা করা।

শিল্প ক্ষেত্রে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টঃ

শিল্প ক্ষেত্রে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্ট নিয়মিত পরিকল্পনা, আর্থিক কৌশল, শেয়ার ছাড়ার জন্য প্রসপেক্টাস তৈরী, পেনশন ফান্ড পরিচালনা, দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ, সম্ভাব্য বিনিয়োগ তদন্ত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে একত্রীকরণ করা বা টেকওভার ইত্যাদি বিষয়াদির সঙ্গে জড়িত থাকে।

কর্মসংস্থানের সুযোগঃ

চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের জন্য রয়েছে বৈচিত্রময় কাজের সুযোগ।
• স্বাধীন পেশাদার অনুশীলন
• চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টস ফার্ম
• ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিসেস
• বিজনেস হাউস এবং শিল্প
• কনসালটেন্সি ফার্ম
• বড় প্রতিষ্ঠান এবং ইনস্টিটিউশন
• আর্থিক প্রতিষ্ঠান

ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টস এ প্রায় ১৪৫০ জন সদস্য আছে, যাদের ৭০ ভাগ পাবলিক প্যাকটিস এবং অবশিষ্ট ৩০ ভাগ বিভিন্ন বাণিজ্য ও শিল্প সেবায় নিয়োজিত আছে।

আয়ঃ

একজন চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টের আয় প্রতি বছরে ৫.০ লক্ষ থেকে ২৫ লক্ষ।
(বেতন তথ্য উৎস PayScale.com )

উপার্জনের বিবরণঃ

একটি কোম্পানীতে চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টদের পদের উপর উপার্জন নির্ভর করে। প্রতি মাসে গড় আয় ৬০,০০০ থেকে ১.৮ লাখ পর্যন্ত হতে পারে। আর সিনিয়রদের ক্ষেত্রে বলা হয়ে থাকে আকাশই হচ্ছে তাদের শেষ সীমা!