বাতের ব্যথা থেকে বাঁচার কিছু সহজ উপায় জেনে নিন

বাত হলে অনেকে অনেক কিছু খেতে বারণ করেন। কেউ না জেনে সেগুলো পালন করেন। আবার কেউ করেন না। তবে বাতের ব্যথার সমস্যা থাকলে আপনাকে খাবারের ওপর নিয়ন্ত্রণ আনতেই হবে। না হলে সমস্যা আরো বেড়ে যেতে পারে।

জেনে নিন বাতের ব্যথায় কী খাবেন আর কী খাবেন না:

অনেক ধরনের খাবারে রয়েছে এমন কিছু উপাদান যা ইনফ্ল্যামেটরি মানে ব্যথা উদ্রেককারী। এগুলো খেলে রক্তে ব্যথা উদ্রেককারী ইন্টারলিউকিন বা লিউকোট্রয়েন্স বেড়ে যায়। যেমন- বাতের রোগীদের টমেটো, লেবু, আমড়া জাতীয় ফল না খাওয়াই ভালো। আবার ময়দা, লবণ ও সাদা চিনিও ব্যথা-বেদনা বাড়ায়। খাবার লবণে যে সোডিয়াম আছে তা বাতের রোগীদের পা ফোলা বা রস নামানোর জন্য দায়ী হতে পারে। লাল মাংস ও বীজ বা শিকড় জাতীয় খাবার, পালংশাক ইত্যাদিতে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ অনেক যা বাতের রোগীদের জন্য ভালো নয়।

কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি হিসেবে কাজ করে, মানে ব্যথা কমাতে কার্যকর। যেমন- বিভিন্ন মসলা, আদা, ক্যাপসিকাম ও দারচিনি। ব্যথা কমাতে এদের কার্যকারিতা চমৎকার। খেতে পারেন নানা ধরনের বাদাম। ভিটামিন ‘ডি’ পেতে রোদের আলো চাই প্রচুর, আর ভিটামিন ‘ডি’ দরকার হয় দেহে ক্যালসিয়াম শোষণের জন্য। ক্যালসিয়াম পাবেন দুধ, দুগ্ধজাত খাদ্য ও ছোট মাছে। ভিটামিন বি-১২ বাতের রোগীদের জন্য উপকারী। শস্য জাতীয় খাবারে এই ভিটামিন পাওয়া যায়। এছাড়া খেতে পারেন লাল চাল, লাল আটা বা ভুট্টা।