যেভাবে বুঝবেন শরীরেপ্রোটিনের ঘাটতি রয়েছে

শরীরকে সচল রাখতে চাইলে দরকার পরিমিত প্রোটিন। মূলত প্রোটিন থেকে এনার্জি পাওয়া যায়। প্রোটিন দীর্ঘক্ষণ পেট ভর্তি রাখে। প্রোটিনে প্রচুর অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকায় শরীরের পেশী বৃদ্ধি হয়। অনেক সময় আবার শরীরে প্রোটিনের ঘাটতিও দেখা দেয়। এতে করে ভবিষ্যতে বড় সমস্যা দেখা দিতে পারে।

কি কি লক্ষণ দেখে বুঝবেন শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি হয়েছে:

ক) ত্বক, চুল ও নখের সমস্যা: প্রোটিনে ঘাটতি হলে ত্বক, চুল ও নখে দাগ ছাপ দেখা যায়। লালচে দাগ, পাতলা চুল, চুলের রং হাল্কা হয়ে যাওয়া এর লক্ষণ।

খ) শরীরের মাংস ক্ষয়: শরীরের মূল উপাদান প্রোটিন তাই এর অভাব হলে চেহারা খারাপ হতে শুরু করে।

গ) হাড় ভাঙার ঝুঁকি বাড়ে: প্রোটিন হাড়কে শক্ত ও গভীর রাখে। প্রোটিনের ঘাটতি হলে হাড় দুর্বল ও ভঙ্গুর হয়ে যায়।

ঘ) বেশি খিদে, অতিরিক্ত ক্যালোরি গ্রহণ: প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার দীর্ঘক্ষণ পেট ভর্তি রাখে ফলে বারবার খিদে পায় না। এবং অতিরিক্ত ক্যালোরি জাতীয় খাবার খাওয়ার প্রবণতা কম থাকে।

ঙ) ইনফেকশনের রিস্ক: প্রোটিনের অভাবে ইমিউনিটি ব্যবস্থা ধাক্কা খায়। ফলে শরীরে রোগ বাসা বাঁধতে পারে।

চ) ফ্যাটি লিভার: প্রোটিন ঘাটতির একটি সাধারণ লক্ষণ হল ফ্যাটি লিভার।

ছ) শিশুদের সঠিক বাড়তে বাধা: শিশুদের ক্ষেত্রে প্রোটিন খুবই জরুরি। ঠিক মতো প্রোটিন না খেলে তাদের বৃদ্ধি ও বিকাশ ব্যহত হয়। সামুদ্রিক মাছ, সয়াবিন, জিন, শিম, দুধ, পনির, দই, আমন্ড, ওটস, মুরগির মাংস, কুটির পনির, ব্রকোলি, টুনা মাছ, ডাল, কুমড়ো বীজ, তিসির বীজ, মাছ ও বাদামে প্রচুর প্রোটিন থাকে।

তাই সারা দিনে এসব খাবার পরিমাণ মতো খান আর সুস্থ থাকুন।