এই ৫টি নেতিবাচক দিক জানেন কি? না জানলে জেনেনিন বিস্তরিত

ওজন কমানোর কারণে বাইরে থেকে আপনি একটি আকর্ষণীয় চেহারা পাবেন ঠিকই, তবে কোনো কোনো ক্ষেত্রে শরীরের মধ্যে বিপর্যয় সৃষ্টি করতে পারে। ওজন কমানোর কৌশলগুলো মেনে চলা কঠিন এবং নিজেকে নির্দিষ্ট আকৃতিতে নিয়ে আসার জন্য আমাদের প্রচেষ্টাও কম নয়। অনেকে ওজন কমানোর জন্য চিকিৎসকের দ্বারস্থও হন। ওজন কমানোর অনেক উপকারিতা রয়েছে ঠিকই, সেইসঙ্গে থাকতে পারে কিছু নেতিবাচক দিক। চলুন জেনে নেই তেমনই ৫ প্রভাব সম্পর্কে-

ত্বক ঝুলে যাওয়া
ওজন কমানোর ফলে আপনার ত্বকের ভেতরের চর্বি দ্রবীভূত হওয়ার সময় যেমন আছে তেমনই থাকবে। এটা প্রায়ই দেখা যায় যারা স্বাভাবিক গতির চেয়ে দ্রুত ওজন কমায়। ঝুলে যাওয়া ত্বকের কারণে অনেকে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্তও নিয়ে থাকে এবং শেষ পর্যন্ত শরীরে দাগ পড়ে। ডায়েটিশিয়ানরা ধীর ও স্থির উপায়ে ওজন কমানোর পরামর্শ দেন যাতে ত্বক সঙ্কুচিত হওয়ার সময় পায়।

ঘুমের ধরণ বিঘ্নিত হতে পারে
বেশিরভাগ ওজন কমানোর কৌশল এবং এরপর ওজন কমে যাওয়ার কারণে অনেকের ঘুমের প্যাটার্নে ব্যাঘাত ঘটে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ঘুম নির্ভর করে আমরা যে খাবার গ্রহণ করি তার ওপর। খাবারের পরিমাণ শরীরে হরমোন নিয়ন্ত্রণ করে। কম ক্যালরির ক্ষেত্রে, হরমোনের ভারসাম্য পরিবর্তিত হয় এবং শরীরকে ঘুমাতে দেয় না। খাদ্য গ্রহণ এবং ওজনের বিশাল ওঠানামা অবশ্যই ঘুমের ধরণকে প্রভাবিত করবে এবং ধীরে ধীরে সামাজিক জীবনকে প্রভাবিত করার দিকে অগ্রসর হবে।

বিষণ্নতা আনতে পারে
ওজন হ্রাস একটি ধীর প্রক্রিয়া। যদিও সবাই দ্রুত ওজন কমাতে চায়, কিন্তু কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছতে কয়েক মাস সময় লেগে যায়। যেহেতু ওজন কমানোর কৌশলের ক্ষেত্রে অন্য যেকোনো কিছুর চেয়ে বেশি উদ্যোগ এবং উত্সাহের প্রয়োজন, তাই মানুষ খুব তাড়াতাড়ি হাল ছেড়ে দেয়। যখন চেষ্টা করার পরও কাঙ্ক্ষিত ফল পাওয়া যায় না তখন এটি অসন্তোষের দিকে নিয়ে যায় এবং ধীরে ধীরে বিষণ্নতার দিকে নিয়ে যেতে পারে।

এছাড়াও আপনি যদি এমন কেউ হন যিনি প্রতিদিন ওজনের ওঠানামা গণনা করেন, তাহলে ওজনে স্থিরতা দেখলেই তা আপনাকে পাগল করে তুলবে। তাই ওজন কমাতে যাওয়ার আগে আপনাকে এর জন্য একটি দৃঢ় মানসিকতা তৈরি করতে হবে এবং সবসময় মনে রাখতে হবে, এটি একটি দীর্ঘ যাত্রা; রাতারাতি কিছুই হবে না।

সামাজিক জীবনকে প্রভাবিত করতে পারে
ধরুন আপনার বন্ধুরা একটি পার্টি করছে এবং আপনি এতে যোগ দিতে পারবেন না কারণ আপনি একটি কঠোর ডায়েট অনুসরণ করছেন। ধীরে ধীরে আপনি হয় পার্টির বাইরে থাকবেন না হয় আপনি ধরে নেবেন যে আপনাকে ইচ্ছাকৃতভাবে পার্টির বাইরে রাখা হয়েছে। ওজন হ্রাস একটি ব্যক্তিগত প্রতিশ্রুতি। আপনার লক্ষ্য আপনার চেয়ে ভালো কেউ বুঝবে না। আপনি যদি এই যাত্রায় একা থাকতে পারেন তবে এগিয়ে যান।

স্বাদ পরিবর্তন হতে পারে
বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে ওজন কমানোর পরে মানুষেরা স্বাদে পরিবর্তন অনুভব করতে পারে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, ওজন কমানোর জন্য ব্যারিয়াট্রিক সার্জারি করা রোগীদের প্রায় ৮৭% রোগী অস্ত্রোপচারের পরে স্বাদে পরিবর্তনের কথা জানিয়েছেন, এবং তাদের প্রায় ৫০% বলেছেন যে খাবারের স্বাদ তেমন ভালো ছিল না। এর কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওজন হ্রাসের কারণে হরমোনের কার্যকারিতায় একটি ওঠানামা হয়েছে যার কারণে স্বাদ গ্রহণকারীরা মস্তিষ্কে সঠিকভাবে তথ্য রিলে করতে পারে না।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy