দ্রুত ওজন কমাতে চান? তাহলে খান এসব বিশেষ ফল গুলো

বর্তমানে ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যায় অনেকেই ভুগছেন। অতিরিক্ত ওজন বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার বিকল্প নেই।

তবে অনেকেই ওজন কমাতে গিয়ে ঠিক কী খাবেন আর কী খাবেন না তা বুঝতে পারেন না। বিশেষ করে কোন ফল ওজন কমাতে সাহায্য করবে তা জানা নেই অনেকেরই! জানেন কি, একটি ফল আছে যেটি খেলে দ্রুত কমবে ওজন আর বাড়বে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

সেই ফলটি হলো নাশপাতি। পুষ্টিবিদরা এই ফলটিকে পুষ্টির পাওয়ার হাউস হিসেবে বিবেচনা করেন। এর মধ্যে আছে পটাশিয়াম, পেকটিন ও ট্যানিনের মতো উপাদান। এছাড়াও নাশপাতিতে প্রাকৃতিক চিনির পরিমাণও অনেক কম থাকে।

নাশপাতিতে আরও আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, বি, বি ২, ই, ফলিক অ্যাসিড ও নিয়াসিন নামের পুষ্টিকর উপাদান। ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, কপার, আয়রনসহ অন্যান্য মিনারেলেরও উৎকৃষ্ট উৎস ফলটি। এছাড়াও নাশপাতিতে ক্যালোরি কম থাকে, যা ওজন কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ওজন কমাতে ফাইবারজাতীয় খাবারের বিকল্প নেই। ২০০১ সালে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেডিসিনের জন্য খাদ্য ও পুষ্টি বোর্ড কর্তৃক পরিচালিত গবেষণায় দেখা গেছে, একটি মাঝারি আকারের নাশপাতিতে ৬ গ্রাম ফাইবার থাকে।

এটি নারীদের দৈনিক চাহিদার ২৪ শতাংশ পূরণ করে। ফাইবারজাতীয় খাবার খেলে পেট দীর্ঘসময় ভরা থাকে। একই সঙ্গে এটি আপনার হজমকেও ধীর করে দেয়।

ফাইবারের পাশাপাশি ওজন কমাতে ক্যালোরির দিকেও নজর রাখতে হয়। নাশপাতিতেও অনেক কম ক্যালোরি থাকে। একটি নাশপাতিতে ৫৬-১০০ গ্রাম ক্যালোরি

অন্যদিকে নাশপাতির মধ্যে ৮৪ শতাংশই জল। এসব কারণেই বিশেষজ্ঞরা এই ফলকে ওজন কমানোর সেরা ফল বলে বিবেচনা করেন। এবার জেনে নিন নাশপাতি খেলে শরীরের যেসব সমস্যা দূর হবে-

> কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে খাদ্যতালিকায় নাশপাতি অন্তর্ভুক্ত করুন। যেহেতু এই ফলে প্রচুর জল থাকে তাই এটি অন্ত্রের জন্য উপকারী।

> নারীদের মাসিকসহ মেনোপোজ পরবর্তী বিভিন্ন জটিলতা কাটাতে নাশপাতির জুড়ি নেই।

> দাঁতের মাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হলে নাশপাতির রস ও অল্প ফিটকিরি মিশিয়ে রেখে সকালে খেলে মাড়ির ক্ষয় রোধ হয়।

> ওজন কমাতে এই ফলে ঝুড়ি মেলা ভার। নাশপাতিতে থাকা ফাইবার অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে। ফলে বারবারে খাওয়ার প্রবণতা কমে। এ কারণে স্বাভাবিকভাবেই ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনা কমে যায়।

> করোনাকালে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করার পরামর্শ দিচ্ছেন সব বিশেষজ্ঞরাই। বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, নাশপাতিতে থাকা ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের রোগ প্রতিরোধী ক্ষমতা বাড়ায়। এ কারণেই শিশু থেকে বৃদ্ধ সবারই নিয়মিত এই ফলটি খাওয়া উচিত।bs

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy