প্রিয়জনকে ভালোবাসলেই মুক্তি মিলবে এসব জটিল রোগ থেকে, জেনেনিন

প্রেমে পড়ার কোনো কারণ থাকে না। মনের ভালো লাগা একসময় ভালোবাসাই পরিণত হয়। প্রেমে পড়ে কেউ কবিতা লেখেন, কখনো কখনো গেয়ে ওঠেন কোনো পছন্দের গান। মনের মধ্যে ঘুরে বেড়ায় রংধনু রঙের প্রজাপতিগুলো। ভালোবাসলে পৃথিবীটাই আরো সুন্দর হয়ে যায়।
তাই তো মানুষ ভালোবাসে। সে ভালোবাসা প্রিয় মানুষটিকে যেমন ভালো রাখে তেমনি আমাদের জীবনেও আশির্বাদ হয়ে দেখা দেয়। কারণ অনেক রোগও আর কাছে আসার সাহস করে না।

ভালোবাসলে যে রোগগুলো থেকে থাকা যায় অনেক দূরে-

ব্যথা কমে

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষকরা দেখিয়েছেন, গভীর ভালোবাসা ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে পারে। প্রিয় মানুষটির সান্নিধ্য ৪০ শতাংশ মাঝারি ধরনের ব্যথা এবং ১০ থেকে ১৫ ভাগ তীব্র ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

হার্ট ভালো থাকে

ভালোবাসা থেকে হৃদয়কে কি আর আলাদা করা যায়? ভালোবাসা থাকলে সেই দম্পতির হার্টের অসুখের ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় কম। এরা বাঁচেও অসুখী দম্পতিদের তুলনায় বেশি।

রক্তচাপ কমিয়ে আনে 

মানুষটিকে দেখলেই আপনার তৃষ্ণা পায় বা মাথা ঝিমঝিম করে উঠতে পারে। এসবই কিন্তু নিম্ন রক্তচাপের ফল। নর্থ ক্যারোলিনা ইউনিভার্সিটির গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে উচ্চ রক্তচাপ।

কোলেস্টরেল নিয়ে ভাবনার কিছু নেই

অনেকেই আছেন যারা প্রেমে পড়েই মোটা হতে থাকেন। এটা অবশ্য বিয়ের পর বেশিরভাগ সুখী দম্পতির মাঝেই দেখা যায়। তবে একথাও সত্য যে, ভালোবাসা ক্ষতিকর কোলেস্টরেল কমিয়ে দেয়।

ক্যান্সারও প্রতিরোধ করে 

মরণব্যাধি ক্যান্সার প্রতিরোধেও ভালো কাজে দেয় ভালোবাসা। ইউনিভার্সিটি অব আইওয়ার’র এক গবেষণায় দেখা গেছে, ওভারিয়ান বা জরায়ুর ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায় সুখী নারীদের।

এছাড়াও ভালোবাসা বাড়িয়ে দেয় ত্বকের উজ্জ্বলতা। স্নায়ুকে শক্তিশালী করে তোলে ও স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে।TS

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy