বলিউড নায়িকাদের মতো সৌন্দর্য ধরে রাখুন ৪ যোগাসনেই, অবশ্যই পড়ুন

বয়স বাড়তেই শরীরে পড়ে বার্ধক্যের ছাপ। এর ফলে শরীর তার উজ্জ্বলতা, নমনীয়তা ও শক্তি হারাতে শুরু করে। সময়ের সাথে সাথে অনেকেই উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হৃদরোগসহ নানা সমস্যায় ভুগতে শুরু করেন।

একই সঙ্গে মুখের ত্বকে সূক্ষ্ম রেখা, পিগমেন্টেশনের মতো বার্ধক্যের ছাপগুলো চেহারার সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয়। ফলে বয়স্ক দেখাতে শুরু করে। বয়স বাড়লে শরীর তার স্বাভাবিক সৌন্দর্য হারাবে এটিই স্বাভাবিক। তবে নিয়মিত কসরতের ফলে ত্বক টানটান রাখা সম্ভব। ফলে শরীরও থাকবে সুস্থ।

অনেকেই বর্তমানে তরুণ থাকতে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ, স্কিনকেয়ার পণ্য ব্যবহার করেন। আবার কেউ কেউ সার্জারিও করেন। তবে সবার পক্ষে তো আর এসব করা সম্ভব নয়। তাই বয়সকে ১০ বছর কমাতে আজ থেকেই শুরু করুন যোগাসন।

যোগাসন একটি প্রাচীন শরীরচর্চা রপদ্ধতি। যার উৎপত্তি ঘটে ভারতে। স্বাস্থ্য ও ত্বকের নানা সমস্যা নিরাময়ে যোগাসন এখন বিশ্বজুড়েই অধিক পরিচিত।

যোগব্যায়াম অনুশীলন শুধুমাত্র শারীরিকভাবে নয় মানসিকভাবেও সুস্থ হতে সাহায্য করে। যোগব্যায়াম শরীর থেকে ক্ষতিকারক টক্সিন বের করে দেয়, রক্ত সঞ্চালন উন্নত করে, অনাক্রম্যতা বাড়ায়। যা শারীরিক অসুস্থতা ও ত্বকের নানাবিধ সমস্যা দূর করে।

বলিউডের জনপ্রিয় সব অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খান, মাধুরী দীক্ষিত, শিল্পা শেঠি, আলিয়া ভাটসহ বেশিরভাগই তাদের স্বাস্থ্যের জন্য যোগের উপর নির্ভর করে। বলিউড সেলিব্রেটিদের তারুণ্যের চেহারার রহস্য হলো যোগব্যায়াম। এমন অনেক যোগাসন আছে, যা নিয়মিত করলে বয়সের ছাপ এড়িয়ে যেতে পারবেন।

এ বিষয়ে ফিটনেস প্রশিক্ষক প্রিয়াঙ্কা সিং জানান, ‘বেশ কয়েকটি যোগাসন আছে যা নিয়মিত করলে আপনাকে বয়সের চেয়েও তরুণ দেখাবে।’ এই বিশেষজ্ঞের মতে, ‘এই যোগাসনগুলো যে কোনো স্কিনকেয়ার প্রোডাক্টের চেয়েও বেশি কার্যকর। এই আসনগুলো পুরো শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে সাহায্য করে। ফলে মুখে বার্ধক্যের চিহ্ন পড়া থেকে নিস্তার মেলে।’

চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক, ত্বকের তারুণ্য বজায় রাখতে ও সুস্থ থাকতে নিয়মিত কোন যোগাসনগুলো করা জরুরি-

বালাসন

শিশুর ভঙ্গি হিসেবেও পরিচিত এই যোগব্যায়াম। এই ভঙ্গি ত্বককে সতেজ ও তরুণ রাখতে সাহায্য করে। এই যোগাসন স্বাস্থ্যেরও উন্নতি করে ও স্ট্রেসকে দূর করে।

বালাসন করতে প্রথমে হাঁটু বাঁকিয়ে মাটিতে বসুন। তারপর মাথা ধীরে ধীরে সামনে নিচু করে মাটিতে লাগিয়ে নিন। বুক একদম উরুর সঙ্গে লেগে থাকবে। আপনার উভয় হাতই সামনে সোজা করে রাখুন। কয়েক সেকেন্ডের জন্য এই ভঙ্গিতে থাকুন। তারপর ছেড়ে দিন।

হালাসানা

লাঙ্গলের ভঙ্গি নামেও পরিচিত এটি। হলাসন প্রতিদিন একবার বা দুবার করলে ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটে। এই আসন করতে প্রথমে সোজা হয়ে শুয়ে পড়ুন।

তারপর হাত দুটো সোজা করে মাটিতে রেখেই ধীরে ধীরে দুই পা উঠিয়ে নিন। দুই পা মাথার উপরে উঠিয়ে নিয়ে আসুন। তারপর মাটিতে স্পর্শ করার চেষ্টা করুন। কয়েক সেকেন্ড এই ভঙ্গিতে থাকুন ও তারপর ছেড়ে দিন।

সর্বাঙ্গাসন

এই ভঙ্গিকে কাঁধের স্ট্যান্ডও বলা হয়। বিশেষজ্ঞের মতে, এই যোগব্যায়াম বার্ধক্য প্রক্রিয়াকে ধীর করতে সাহায্য করে। এর অনেক বৈচিত্র আছে তবে আপনি যদি যোগব্যায়ামে নতুন হন তবে আপনি এই মৌলিক অনুশীলন করতে পারেন।

প্রথমে সোজা হয়ে শুয়ে পড়ুন। তারপর দুটো পা উঁচু করুন। একই সঙ্গে কোমরও তুলে ধরুন দু’হাতে। এই আসন করার সময়, আপনার পায়ের দিকে মনোযোগ দিন। এভাবে কয়েক সেকেন্ড থাকুন

চক্রাসন

চক্রাসন ঘাড় ও মুখের পেশি টানটান রাখতে সাহায্য করে। এটি বলিরেখার মতো বার্ধক্যের লক্ষণও কমায়। চক্রাসন করতে আগে শুয়ে পড়ুন। তারপর পা মাটিতে রাখুন। কোমর ধীরে ধীরে উঁচু করে নিন।

তারপর দু’হাতের তালুও মাটিতে রেখে ওইভাবেই উঠুন। এক্ষেত্রে হাত ও পায়ের দিকে নজর রাখুন। মাথা উপরে রাখুন। কয়েক সেকেন্ডের জন্য এই ভঙ্গিতে থাকুন ও তারপর ছেড়ে দিন। আসনটি দুবার পুনরাবৃত্তি করুন।

এই যোগাসনগুলো মানসিক চাপ কমায়। যার কারণে ব্রণ ও প্রদাহের মতো ত্বকের সমস্যা কমায়। মনে রাখবেন বার্ধক্য বন্ধ করা যায় না, তবে এই আসনগুলো বার্ধক্যের লক্ষণগুলো রোধ করা যায়।Ts

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy