ব্রেকআপের আগে নিজেকে যে ৫ প্রশ্ন করা প্রয়োজন! জেনেনিন একনজরে

সম্পর্কে বিচ্ছেদ কারও কাম্য নয়। তবুও বিভিন্ন কারণে প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে যেতে পারে। অবিশ্বাস, মিথ্যা কথা বলা, সন্দেহ, প্রতি অন্যজনের সম্মান না থাকা ইত্যাদি কারণে সম্পর্ক ভেঙে যায়।

আজকাল সম্পর্ক যতটা সহজেই গড়ে উঠছে ঠিক তত সহজে আবার ভেঙেও যাচ্ছে। তাই সম্পর্ক ভাঙা বা ব্রেকআপের আগে নিজেকে ৫টি প্রশ্ন অবশ্যই করুন-

>> আপনি কি ‘দ্য গ্রাস ইজ গ্রিনার’ সিন্ড্রোমে ভুগছেন? অনেকেই আছেন যারা কারও সঙ্গে দীর্ঘসময় ধরে থাকলে তার উপর বিরক্ত হয়ে ওঠেন। কোনো সমস্যা না থাকলেও এমন মানুষেরা বিভিন্ন সমস্যা খোঁজেন সঙ্গীর মধ্যে। তারা মনে করেন সঙ্গী প্রতারণা করছেন।

বাস্তবে বিষয়টি তেমন নাও হতে পারে। নিজের অজান্তেই এমন ব্যক্তিরা দাম্পত্যে কলহ সৃষ্টি করেন বিভিন্ন কারণে। এসব লক্ষণ হলো দ্য গ্রাস ইজ গ্রিনার সিন্ড্রোম। তাই ব্রেকআপের আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনিও কি এই সিন্ড্রোমে ভুগছেন?

>> কেন আপনি সঙ্গীর প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিলেন? প্রশ্নটি নিজেকে করুন ব্রেকআপের আগে। তখন মনে করার চেষ্টা করুন সঙ্গীর সঙ্গে আপনার প্রথম দেখা কোথায় হয়েছিল ও তার কী আপনাকে আকৃষ্ট করেছিল।

সবার মধ্যেই এমন কিছু গুণ থাকে যা অন্যকে আকৃষ্ট করে। সেই গুণ কি এখন আর আপনার ভালো লাগছে না?

>> সঙ্গী কি এখন আর আপনাকে অগ্রাধিকার দেন না? সম্পর্কের বয়স বাড়তে শুরু করলে অনেকেরই মনে হয় সঙ্গীর কাছ থেকে হয়তো তিনি অগ্রাধিকার হারিয়েছেন।

এটি কখনো বাস্তবেই ঘটে আবার অনেকেই নিজেকে হঠাৎ করেই ছোট মনে করতে শুরু করেন ও হতাশ হয়ে পড়েন। সঙ্গী যদি আপনাকে এড়িয়ে চলেন কিংবা আগের মতো অগ্রাধিকার না দেন তাহলে অবশ্যই বিচ্ছেদের কথা ভাবতে পারেন।

>> প্রতিটি সম্পর্কের মধ্যে আপস করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে অনেকে চুক্তি ভঙ্গ করে ফেলেন কিংবা পতারণা করেন। ধরুন আপনার সঙ্গী প্রতরণা করলেন, আপনি তাকে ক্ষমাও করে দিলেন!

এরপর যদি তিনি আবারও একই কাজ করেন তাহলে ব্রেকআপ করে নিন। আর ব্রেকআপের আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন, সত্যিই কি আপনার সঙ্গী একজন প্রতারক?

>> সম্পর্ক ভাঙার আগে নিজেকেই প্রশ্ন করুন আপনি কি এখনো সঙ্গীর ভালবাসা অনুভব করেন? উপরোক্ত বিভিন্ন কারণে দম্পতিদের মধ্যে অবিশ্বাস, ক্ষোভ, ঘৃণা, অসম্মান ইত্যাদির জন্ম দেয়।

আপনি যদি এখন আর সঙ্গীর ভালোবাসা অনুভব না করেন তাহলে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে যাওয়াই ভালো। আর যদি সবকিছু ভুলে তাকে ভালোবাসতে পারেন তাহলে বিচ্ছেদ করার আগে দুবার ভাবুন। প্রয়োজনে অন্য কারও সাহায্য নিন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy