যে উপায়ে সুগন্ধি লাগালে তা হবে আরো দীর্ঘস্থায়ী, জেনেনিন সহজ উপায়

প্রকৃতিতে ধীরে ধীরে গরম পড়তে শুরু করেছে। গরম মানেই ঘাম। আর ঘাম মানেই শরীরে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হওয়া। আর এর থেকে রক্ষা পেতে কমবেশি সবাই সুগন্ধি ব্যবহার করেন। তাছাড়া শতাব্দী প্রাচীন আতর থেকে হাল ফ্যাশনের ‘বডি স্প্রে’, সুগন্ধের কদর বাড়ছে বই কমছে না।

কিন্তু জানেন কি সুগন্ধি ঠিকঠাক না মাখা হলে কার্যত ব্যর্থ হয়ে যেতে পারে সব আয়োজনই! অদ্ভুত শোনালেও, বিশেষজ্ঞরা কিন্তু বলছেন, সুগন্ধি মাখার পদ্ধতিরও ঠিক-ভুল রয়েছে। সঠিক সৌরভ পেতে হলে অবলম্বন করতে হবে সঠিক পদ্ধতি।

কী করা চলবে না

অনেকেই জামা কাপড়ে মেখে নেন সুগন্ধি। বিশেষজ্ঞরা কিন্তু বলছেন, এতে কাজের কাজ কিছুই হয় না, বরং দাগ পড়ে যেতে পারে জামা কাপড়ে। আবার কব্জিতে সুগন্ধি মেখে জোরে ঘষাঘষি করাও অযৌক্তিক। এই কাজের ফলে সুগন্ধ কমে যাওয়ার সম্ভবনাই বেশি।

কী করবেন

>> তীব্রতা ভেদে সর্বোচ্চ তিন থেকে চার বার সুগন্ধি মাখুন। তার বেশি মাখলে গন্ধ উগ্র হয়ে যেতে পারে।

>> দেহের যে যে অঙ্গে হৃদস্পন্দন অনুভূত হয় সেই অঙ্গগুলোকে ‘পালস পয়েন্ট’ বলে। এই স্থানগুলোতে সুগন্ধি লাগালে তা দীর্ঘস্থায়ী হয়। কাজেই সুগন্ধি লাগানোর আদর্শ স্থল হতে পারে কব্জি, গলার তলা, কানের পেছন, হাঁটুর উল্টো দিক কিংবা বাহুর ভাঁজ।

>> সুগন্ধি ছড়ানোর সময়ে, ত্বকের থেকে পাঁচ-সাত ইঞ্চির দূরত্ব বজায় রাখুন, এতে সঠিক পরিমাণ সুগন্ধি সঠিক অঞ্চল জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে।bs

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy