শুধু তরমুজ নয় এর খোসাতেই রয়েছে ভরপুর পুষ্টিগুণ, দূরে রাখে এই রোগগুলি

গ্রীষ্মে কালের খুব একটি জনপ্রিয় ফল তরমুজ। এটি শরীরকে হাইড্রেটেট এবং সতেজ রাখতে জন্য খুব সহায়ক। তবে আপনি কি জানেন যে তরমুজ যেমন আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী তেমনি এর খোসাগুলিও আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। এর খোসার মধ্যে কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম জাতীয় পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে। এতে সিট্রুলাইন নামক একটি অ্যামিনো অ্যাসিড রয়েছে যা আপনার হার্ট এবং ইমিউন বুস্ট জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তবে আসুন জেনে নেওয়া যাক যে, তরমুজের খোসা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য কীভাবে কাজ করে।

তরমুজের খোসা উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস করতে সহায়তা করে। এর খোসার মধ্যে রয়েছে এল-সিট্রুলাইন, যা রক্তাবাহগুলি পাতলা করতে সহায়তা করে। যা রক্তচাপকে স্বাভাবিক করতেও সহায়তা করে।

তরমুজের খোসা আপনার হার্ট-কেও সুস্থ রাখতে সহায়ক। এটি আপনার রক্ত ​​সঞ্চালনের উন্নতি করে। এতে উপস্থিত সিট্রোলাইন রক্ত ​​প্রবাহ এবং হার্ট ফেইলিওর, করোনারি আর্টারি ডিজিজের মত সমস্যা রোধে সাহায্য করে।

তরমুজের খোসার মধ্যে পটাসিয়াম রয়েছে। এটিতে মূত্রবর্ধক এবং হাইড্রেটিং বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ইউটিআইতেও উপকারী। ইউটিআই সমস্যার ক্ষেত্রে আপনার নিয়মিত এক গ্লাস টাটকা তরমুজের রস পান করা উচিত। এ ছাড়া কিডনিকে সুস্থ রাখতেও এটি উপকারী।

তরমুজের খোসা , ত্বকের সমস্যাগুলিতে উপকারী। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমানে লাইকোপিন, যা ত্বকের সংক্রমণ এবং বাতের ব্যথা কমাতেও সহায়ক। ত্বকের যত্ন নিতে এর জন্য তরমুজের খোসার সঙ্গে অ্যাভোকাডো বা কলা একসঙ্গে মিশিয়ে একটি ফেসমাস্ক তৈরি করে মুখে লাগান।

তরমুজ খোসা মধ্যে থাকা সিট্রুলাইন নামক উপাদান থাকে যা ওজন কমানোর জন্য খুবই সহায়ক। এটি ফাইবারে পূর্ণ, যা আপনার পেটের কমাতে সহায়তা করে।

তরমুজের খোসাতে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম থাকে। যা আপনাকে আরও ভাল ঘুম হতে সহায়তা করে। এটি আপনার পরিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করতেও সহায়তা করে যা ঘুমের ব্যাঘাত এবং অনিদ্রার সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সহায়তা করে।

চাটনি এর জন্য তরমুজের কাটা খোসা ছাড়িয়ে টুকরো করে ৩ থেকে ৪ কাপ নিন। এর সবুজ অংশ খোসা ছাড়িয়ে মুছে ফেলুন। এবার এক কাপ চিনি, আধা কাপ লবন, আধা কাপ কাগজ এবং কিছুটা আদা কুচি করে নিন। এবার একটি সসপ্যানে সব জিনিস মিশিয়ে ৩ থেকে ৪ ঘন্টা অল্প আঁচে রান্না করুন। এতে আপনার নিজের স্বাদের মশলা আলাদা আলাদা করে যোগ করতে পারেন, তারপরে এই সমস্ত জিনিস পেস্ট করে চাটনি প্রস্তুত করে নিন।bs

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy