Buy deodorant to avoid damage: ক্ষতি এড়াতে ডিওডোরেন্ট কিনুন ‍কিছু বিশেষ উপাদান দেখে, জেনেনিন বিস্তারিত

গরমে ঘামের কারণে শরীরে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়। যা নিজের ও অন্যের বড় অস্বস্তির কারণ। অনেকেই ঘাম ও শরীরের দুর্গন্ধ এড়াতে ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করেন। ডিওডোরেন্ট ঘামের দুর্গন্ধ দূর করে এবং ত্বকের তেল নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। এছাড়াও আরো কিছু কাজে বেশ উপযোগী ডিওডোরান্ট।

তবে আপনার একটু ভুলের কারণে এ ডিওডোরেন্টই বড় রোগের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। ডিওডোরেন্ট কেনার আগে এর উপাদানগুলো অনেকেই ভালো করে দেখে নেন না। যা বিপদের মূল কারণ।

বেশির ভাগ ডিওডোরেন্টে অস্বাস্থ্যকর কিছু উপাদান থাকে। যা শরীরে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে। এ তালিকায় রয়েছে- প্যারাবিন, সালফেটের মতো উপাদান। এগুলো থাকলে সেই ডিওডোরেন্ট কিনবেন না। তা স্বাস্থ্যের বড় ক্ষতি করতে পারে।

কোন কোন উপাদান থাকলে ডিওডোরেন্ট কিনবেন না, চলুন তবে জেনে নেয়া যাক-

>> প্রথমে দেখুন আপনার ডিওডোরেন্টে অ্যালুমিনিয়াম আছে কি-না? যদি থাকে, তাহলে বাদ দিন সেই ডিওডোরেন্ট। কারণ অ্যালুমিনিয়াম ঘর্মগ্রন্থির মুখ বন্ধ করে দেয়। ফলে শরীরের ঘাম হয় না। সেই কারণেই ডিওডোরেন্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো এতে ব্যাপকহারে ক্ষতিকর অ্যালুমিনিয়াম মিশিয়ে থাকেন। কিন্তু এটি পরবর্তীকালে আলঝেইমার রোগের বড় কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

>> অধিকাংশ ডিওডোরেন্টে বেকিং সোডা ব্যবহার করা হয়। ডিওডোরেন্টে ব্যবহৃত অন্য উপাদানগুলোর মতো সোডা ক্ষতিকারক না হলেও এটি ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। যাদের ত্বক খুব স্পর্শকাতর, তারা ডিওডোরেন্ট কেনার আগে দেখেন নিন তাতে বেকিং সোডা আছে কি-না। থাকলে তেমন ডিওডোরেন্ট কেনা থেকে বিরত থাকুন।

কোন কোন উপাদান থাকলে ডিওডোরেন্ট কিনবেন, চলুন তবে জেনে নেয়া যাক-

>> দেখে নিন আপনার ডিওডোরেন্টে ‘সিয়া বাটার’, ‘অ্যালোভেরা’-এর মতো প্রাকৃতিক উপাদান আছে কি-না। ক্ষতিকারক উপাদানগুলো বাদ দিয়ে এ উপাদানগুলো থাকলেই চোখ বন্ধ করে কিনে নিতে পারে সেই ডিওডোরেন্ট।bs

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© 2022 Tips24 - WordPress Theme by WPEnjoy